০৪:১৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

লুম্বিনী থেকে কুশিনারা

  • ডেস্ক রিপোর্ট :
  • আপডেট সময় ০১:৪৮:০৬ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১১ জুন ২০২৩
  • ৮৩৮ বার পড়া হয়েছে

কলিকাতার “দীনেশ-রবীন্দ্র পত্র সম্মানন” প্রাপ্ত এবং Hello Kolkata থেকে “legend of BANGAL” পুরস্কার প্রাপ্ত লেখক অভিজিৎ বড়ুয়া অভি র লিখিত ঐতিহাসিক ঘটনার পেক্ষাপটে রচিত “লুম্বিনী থেকে কুশিনারা” উপন্যাস সকলে সংগ্রহ ও পড়লে ৪০০০ বছর আগে ফিরে বুদ্ধের শাক্য বংশের উৎপত্তির ইতিহাস ও বুদ্ধ সম্পর্কে অনেক ঐতিহাসিক ঘটনা জানতে পারবেন। আর সকল বৌদ্ধ জনগোষ্ঠী এই বইটি সংগ্রহ ও পাঠ করা উচিত, কারণ এই বই আপনাকে শাক্যসিংহ শাক্যমুনি গৌতম বুদ্ধ তথাগতের অনেক ঘটনা প্রবাহ জানতে সাহায্য করবে।

ড. নূহ-উল- আলম লেনিন  ‘লুম্বিনী থেকে কুশিনারা’ বইটি সংগ্রহ করে আগ্রহসহকারে  পড়লেন এবং প্রশংসা করলেন।কলিকাতার বিশিষ্ট সাংবাদিক তাপস রায় লিখেছেন। “ভারতের কলিকাতার বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ বাংলার প্রথিত যশা শিক্ষক অজয় ভট্টাচার্য কলকাতার এক নামী মলে তুলে ধরলেন এই তথ্যের সম্পদ।

‘লুম্বিনী থেকে কুশিনারা’ সম্পর্কে কলিকাতার স্বনামধন্য দৈনিক পত্রিকা ‘সেস্টেসম্যান’ শিরোনামে লিখেছে, ‘গৌতম বুদ্ধের জীবন বৃত্তান্তে সাহসী উপন্যাস লুম্বিনী থেকে কুশিনারা’। বাংলাদেশের বহুল প্রচারিত স্বনামধন্য পত্রিকা দৈনিক মানবকন্ঠে বিশিষ্ট সাংবাদিক, লেখক ও গবেষক দীপংকর গৌতম এক বুক রিভিউতে ‘ লুম্বিনী থেকে কুশিনারা’ উপন্যাসকে, রাহুল সাংকৃত্যায়নের বিখ্যাত গ্রন্থ ‘ভোলগা থেকে গঙ্গা’ এর সাথে তুলনা করেন এবং গৌতম বুদ্ধের জীবন ও তৎকালীন সমাজ নিয়ে খৃীঃ র্প্বূ ২৫০০ বছর আগের ঘটনা প্রবাহে রচিত ‘ লুম্বিনী থেকে কুশিনারা’ গবেষনামূলক উপন্যাস সাহিত্যে এক অনন্য সংযোজন বলে উল্লেখ করেন। এই বিষয়ে 24hrs TV চ্যানেল ২৫ মিনিটের এক সাক্ষাৎকার নেন অভিজিৎ বড়ুয়া অভি র। এবং আকাশ আট টিভিও সাক্ষাৎকার প্রচার করেন। তাছাড়াও কলিকাতার বিখ্যাত পত্রিকা স্টেটসম্যান বিশেষ রিপোর্ট প্রকাশ করে।

এই উপন্যাসের সময়কাল সাধারণপূর্বাব্দ বা খ্রিস্টপূর্বাদ্ধ ৭৫০-৫৪৪। এই উপন্যাস পাঠে পাঠক ২৫০০ বৎসর আগে ফিরে গিয়ে ঐ সময়কে দেখতে পাবেন। ঐ সময়কালে প্রাচীন ভারতের বিভিন্ন পরিবর্তন সূচিত হয়। বৈদিক ব্রাহ্মণ্যবাদ ছাড়াও আজীবক, চার্বক, জৈনধর্ম ও অঞ্জন প্রভৃতি বাষট্টিটি মতবাদের উদয়কাল। এর ফলে সূচিত হয় এক সামাজিক বিপ্লবের, দর্শনের নব নব জাগরণের। যার প্রভাব পরে রাজ্য শাসনে এবং সাধারণ জনগণের আচার আচারণে। সাধিত হয় ধর্ম দর্শনের এক মৌলিক পরিবর্তন।

এই সময়কালকে বেছে নেয়ার কারণ শাক্যসিংহ শাক্যমুনি গৌতম বুদ্ধ তথাগতের জন্ম, ধম্ম প্রচার, মৃত্যু। এই উপন্যাস তার জীবন কথার উপর ভিত্তি করে সেসময়ের ঐতিহাসিক ঘটনার পেক্ষাপটে রচিত। এই উপন্যাস সেই সময়কালকে বুঝতে চাওয়া। লুম্বিনী কাননে যে ঐতিহাসিক জীবনালেক্ষ্যর সূত্রপাত, যার শেষ মহাপরিনির্বাণের মধ্যে দিয়ে কুশিনারা। আশি বৎসর পেক্ষাপটে সেই সময়ের রাজা, রাজ্য, জীবন চরিত্র, রাজ্যের মধ্যে দন্ধ, যুদ্ধ, ধ্বংস, হত্যা, মতবাদের ভেদ প্রভেদ, আবার এরই মাঝে ধম্ম প্রচার প্রসার, সাধারণ কামনা বাসনা প্রেম, এই সকল ঘটনা চক্রকে ফিরে দেখার, তুলে ধরার চেষ্টা এই উপন্যাস।

প্রচ্ছদ করেছেন- শিল্পী তুষার মাহবুব
নাম: লুম্বিনী থেকে কুশিনারা
লেখক: অভিজিৎ বড়ুয়া অভি
প্রকাশক: শায়লা রহমান তিথি
প্রকাশনী: ঝুমঝুমি- ঢাকা
পাওয়া যাচ্ছে: বাতিঘর -চট্টগ্রাম , রকমারি.কম এ অনলাইনে।  পাবেন:

2)
শেয়ার করুন
আরও সংবাদ দেখুন

সীবলী কো-অপারেটিভ সোসাইটি’র শুভ উদ্ভোধন

লুম্বিনী থেকে কুশিনারা

আপডেট সময় ০১:৪৮:০৬ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১১ জুন ২০২৩

কলিকাতার “দীনেশ-রবীন্দ্র পত্র সম্মানন” প্রাপ্ত এবং Hello Kolkata থেকে “legend of BANGAL” পুরস্কার প্রাপ্ত লেখক অভিজিৎ বড়ুয়া অভি র লিখিত ঐতিহাসিক ঘটনার পেক্ষাপটে রচিত “লুম্বিনী থেকে কুশিনারা” উপন্যাস সকলে সংগ্রহ ও পড়লে ৪০০০ বছর আগে ফিরে বুদ্ধের শাক্য বংশের উৎপত্তির ইতিহাস ও বুদ্ধ সম্পর্কে অনেক ঐতিহাসিক ঘটনা জানতে পারবেন। আর সকল বৌদ্ধ জনগোষ্ঠী এই বইটি সংগ্রহ ও পাঠ করা উচিত, কারণ এই বই আপনাকে শাক্যসিংহ শাক্যমুনি গৌতম বুদ্ধ তথাগতের অনেক ঘটনা প্রবাহ জানতে সাহায্য করবে।

ড. নূহ-উল- আলম লেনিন  ‘লুম্বিনী থেকে কুশিনারা’ বইটি সংগ্রহ করে আগ্রহসহকারে  পড়লেন এবং প্রশংসা করলেন।কলিকাতার বিশিষ্ট সাংবাদিক তাপস রায় লিখেছেন। “ভারতের কলিকাতার বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ বাংলার প্রথিত যশা শিক্ষক অজয় ভট্টাচার্য কলকাতার এক নামী মলে তুলে ধরলেন এই তথ্যের সম্পদ।

‘লুম্বিনী থেকে কুশিনারা’ সম্পর্কে কলিকাতার স্বনামধন্য দৈনিক পত্রিকা ‘সেস্টেসম্যান’ শিরোনামে লিখেছে, ‘গৌতম বুদ্ধের জীবন বৃত্তান্তে সাহসী উপন্যাস লুম্বিনী থেকে কুশিনারা’। বাংলাদেশের বহুল প্রচারিত স্বনামধন্য পত্রিকা দৈনিক মানবকন্ঠে বিশিষ্ট সাংবাদিক, লেখক ও গবেষক দীপংকর গৌতম এক বুক রিভিউতে ‘ লুম্বিনী থেকে কুশিনারা’ উপন্যাসকে, রাহুল সাংকৃত্যায়নের বিখ্যাত গ্রন্থ ‘ভোলগা থেকে গঙ্গা’ এর সাথে তুলনা করেন এবং গৌতম বুদ্ধের জীবন ও তৎকালীন সমাজ নিয়ে খৃীঃ র্প্বূ ২৫০০ বছর আগের ঘটনা প্রবাহে রচিত ‘ লুম্বিনী থেকে কুশিনারা’ গবেষনামূলক উপন্যাস সাহিত্যে এক অনন্য সংযোজন বলে উল্লেখ করেন। এই বিষয়ে 24hrs TV চ্যানেল ২৫ মিনিটের এক সাক্ষাৎকার নেন অভিজিৎ বড়ুয়া অভি র। এবং আকাশ আট টিভিও সাক্ষাৎকার প্রচার করেন। তাছাড়াও কলিকাতার বিখ্যাত পত্রিকা স্টেটসম্যান বিশেষ রিপোর্ট প্রকাশ করে।

এই উপন্যাসের সময়কাল সাধারণপূর্বাব্দ বা খ্রিস্টপূর্বাদ্ধ ৭৫০-৫৪৪। এই উপন্যাস পাঠে পাঠক ২৫০০ বৎসর আগে ফিরে গিয়ে ঐ সময়কে দেখতে পাবেন। ঐ সময়কালে প্রাচীন ভারতের বিভিন্ন পরিবর্তন সূচিত হয়। বৈদিক ব্রাহ্মণ্যবাদ ছাড়াও আজীবক, চার্বক, জৈনধর্ম ও অঞ্জন প্রভৃতি বাষট্টিটি মতবাদের উদয়কাল। এর ফলে সূচিত হয় এক সামাজিক বিপ্লবের, দর্শনের নব নব জাগরণের। যার প্রভাব পরে রাজ্য শাসনে এবং সাধারণ জনগণের আচার আচারণে। সাধিত হয় ধর্ম দর্শনের এক মৌলিক পরিবর্তন।

এই সময়কালকে বেছে নেয়ার কারণ শাক্যসিংহ শাক্যমুনি গৌতম বুদ্ধ তথাগতের জন্ম, ধম্ম প্রচার, মৃত্যু। এই উপন্যাস তার জীবন কথার উপর ভিত্তি করে সেসময়ের ঐতিহাসিক ঘটনার পেক্ষাপটে রচিত। এই উপন্যাস সেই সময়কালকে বুঝতে চাওয়া। লুম্বিনী কাননে যে ঐতিহাসিক জীবনালেক্ষ্যর সূত্রপাত, যার শেষ মহাপরিনির্বাণের মধ্যে দিয়ে কুশিনারা। আশি বৎসর পেক্ষাপটে সেই সময়ের রাজা, রাজ্য, জীবন চরিত্র, রাজ্যের মধ্যে দন্ধ, যুদ্ধ, ধ্বংস, হত্যা, মতবাদের ভেদ প্রভেদ, আবার এরই মাঝে ধম্ম প্রচার প্রসার, সাধারণ কামনা বাসনা প্রেম, এই সকল ঘটনা চক্রকে ফিরে দেখার, তুলে ধরার চেষ্টা এই উপন্যাস।

প্রচ্ছদ করেছেন- শিল্পী তুষার মাহবুব
নাম: লুম্বিনী থেকে কুশিনারা
লেখক: অভিজিৎ বড়ুয়া অভি
প্রকাশক: শায়লা রহমান তিথি
প্রকাশনী: ঝুমঝুমি- ঢাকা
পাওয়া যাচ্ছে: বাতিঘর -চট্টগ্রাম , রকমারি.কম এ অনলাইনে।  পাবেন:

1) https://www.rokomari.com/book/author/81374/avijit-barua-avi
2)
https://baatighar.com/author/avujit-barua-avi-avuj-bar-a-45895